টংগীবাড়িতে শিশু ধর্ষণ,ধর্ষক আটক,ঘটনার ধামাচাপা দিতে একজন জনপ্রতিনিধি মরিয়া?

Estimated read time 1 min read

ফেব্রুয়ারী,২৯,২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে ১০ বছরের শিশুকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে মাদক বিক্রেতা রুহুল আমিন শেখ (৫৫) এর বিরুদ্ধে। এঘটনায় স্থানীয় জনতা তাকে আটক করে পুলিশকে দিয়েছেন ।

বুধবার উপজেলার ধীপুর গ্রামের মৃত নূরু শেখের ছেলে রুহুল আমিনকে ধীপুর মোড় থেকে আটক করে মারধর করে থানায় খবর দেয় জনতা।

অন্যদিকে ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতে মরিয়া হয়ে তদবীর চালাচ্ছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি মেম্বার মাকসুদুর রহমান।
আটক ধর্ষক রুহুল আমিনকে পুলিশের কাছ থেকে ছাড়িয়ে আনতে ধীপুর গ্রামের সুমন হালদার ও উপজেলার ধীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ড ইউপি মেম্বার মাকসুরের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ কাজ করছে। তারা শিশুটির পরিবারকে বুঝাচ্ছে যে মেয়ে মানুষ বড় হলে বিয়ে দিতে সমস্যা হবে; তারচেয়ে কিছু টাকাপয়সা নিয়ে দেই। এ তথ্য দেন নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক এক জনপ্রতিনিধি। মেম্বার মাকসুদুরকে একাধিকবার ফোনে চেষ্টা করেও তার ফোন বন্ধ থাকায় মতামত নেওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার বিকালে রুহুল আমিনের স্ত্রী, মেয়ে ও পুত্রবধূ ধীপুরে মেলা দেখতে যান। সেই সুযোগে রুহুল আমিন শিশুটিকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। শিশুটিকে রুহুলের ঘরে ডেকে নেয়ার ভিডিও রেকর্ড রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান।

উপজেলার ধীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ড মহিলা ইউপি সদস্য কাকলি আক্তার জানান, রুহুলের বিরুদ্ধে এর আগেও কয়েকবার শিশু ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল। রুহুল আমিন নিজ বাড়িতে মাদক ব্যবসা করে। সে একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।
তার উপযুক্ত শাস্তি হওয়া দরকার।

টঙ্গীবাড়ী থানার ওসি মোল্লা সোয়েব আলী জানান, ধর্ষণের অভিযোগে রুহুল আমিন নামক এক ব্যক্তি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। এ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

www.bbcsangbad24.com

আরও দেখুন আমাদের সাথে......

More From Author