ভোটের মাধ্যমে বিএনপির আগুন সন্ত্রাসের জবাব দেবে জনগণ : চাঁদপুরে মায়া চৌধুরী

Estimated read time 1 min read


ডিসেম্বর,২৭,২০২৩


নিজস্ব প্রতিবেদক


চাঁদপুর -২ আসনের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেছেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঠেকাতে বিএনপি আগুন সন্ত্রাস করছে, মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করছে। জনগণ ভোটের মাধ্যমে বিএনপির আগুন সন্ত্রাসের জবাব দেবে।

মঙ্গলবার ২৬ ডিসেম্বর দুপুরে চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার ১নং নায়ের গাঁও উত্তর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যৌগে আয়োজিত নন্দি খোলা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে চাঁদপুর -২ আসেন আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী, আওয়ামী লীগের প্রেসিসডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম উঠান বৈঠকে একথা বলেন।

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেন,বিএনপি নির্বাচনে না এসে তাদের জনপ্রিয়তা যাচাই করার সুযোগ হারিয়েছে। প্রকৃত অর্থে তাদের জনপ্রিয়তা- জনসম্পৃক্ততা নেই বলেই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছে। এখন তারা সন্ত্রাসের মাধ্যমে নির্বাচনকে প্রতিহত করার ষড়যন্ত্র করছে। তাদের এ ষড়যন্ত্র সফল হবে না। দেশের জনগন উৎসব মূখর পরিবেশে ভোট দিবে। আমার ভোট আমি দেব যাকে খুশি তাকে দিব।
তিনি আরও বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ হবে। জনগন তার পচ্ছন্দ মতো প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবে। নির্বাচনে আমাদের সকলে নির্বাচনী আচরন বিধি মেনে চলতে হবে। বিএনপি জামায়াত দেশে অস্থিরতা তৈরি করতে চাইলে প্রশাসনে খবর দিবেন
মায়া চৌধুরী আরো বলেন,সবাই মিলে দেশ স্বাধীন করেছি সবাই মিলেই দেশ গড়বো। নির্বাচনকে সামনে রেখে আচরণ বিধি মেনে চলেবেন। আমি আশাবাদী আপনার আমাকে জয়লাভ করাবেন। আমি জয়লাভ করলে আর শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হলে গ্রাম হবে শহর আর স্মার্ট মতলব।
স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি জামাত চক্র নির্বাচন বানচাল করতে ষড়যন্ত্র করছে। ৭ জানুয়ারী হরতাল নৈরাজ্যে অবরোধ আর ককটেল নিক্ষেপ করে নির্বাচন পন্ড করতে চাইছে। আওয়ামী লীগ বসে থাকবে না। নির্বাচন যেভাবে সুষ্ঠু হয় তার সহযোগিতা করবো। এই নির্বাচন হবে নিরপেক্ষ। ভোটের দিন সকাল সকাল মা বোনদের নিয়ে হাজির হয়ে শান্তিপূর্নভাবে ভোট দিবেন।

মতলব দক্ষিণ উপজেলার ১নং নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি শাজাহান সরকারের সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ড., নাসির উদ্দিনের পরিচসলনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক উপকমিটির সদস্য বাংলাদেশ এফবিসিসিআই ব্যবসায়ী সংগঠনের ভাইসপ্রেসিডেন্ট রাসেদুল হোসেন চৌধুরী রনি।

উঠান বৈঠকে আরো বক্তবয় রাখেন জেলা কৃষকলীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন প্রধান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লেয়াকত হোসেন প্রধান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বিএইচএম কবির আহম্মেদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল মোস্তফা তালুকদার,ছেঙ্গারচর পৌরসভার সাবেক মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম জজ, আওয়ামীলীগ নেতা মুক্তার হোসেন গাজী, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শওকত আলী বাদল, মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আসমা আক্তার আখিঁ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান সেলিম, ইপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান মোল্লা, আওয়ামীলীগ নেতা ওমর ফারুক মিয়াজী, হাজী মোঃ মামুন পাটোয়ারী, নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বশির আহমেদ, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি রাসেল পাটোয়ারী নিলয়,যুবলীগ নেতা ডা. আনোয়ার হোসেন, ডা. হাবিবুর রহমান, মোঃ খায়ের আহম্মেদ, জেলা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা সোহেল আহমেদ শাহিন প্রমূখ।

এরপর মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেল ৪ টার সময় চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার ২নং নায়ের গাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত নায়েরগাাঁও বাজারে আয়োজিত উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর -২ আসনের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেন, আগামী ৭ই জানুয়ারী ২০২৪ এ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আমাদের বহুল প্রত্যাশিত অংশ গ্রহণমূলক দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ও আনন্দঘন পরিবেশেই নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়াতে হবে। আমরা যারা মুসলমানরা ঈদের আনন্দটা যেভাবে উৎযাপন করি আর সনাতন ধর্মলম্বী হিন্দু ভাইয়েরা যেভাবে দূর্গা উৎসব করে ঠিক সেভাবে ৭ জানুয়ারি একটি ভোটের উৎসব হবে। এতে সাধারণ মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে,সুন্দর মতো ভোট কেন্দ্রে যেতে পারে আমাদেরকে সে ব্যবস্থাটা করতে হবে। ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোনদেরকে যত্নের সাথে ভোট কেন্দ্রে এনে ভোট দেওয়ার পর আবার তাদেরকে যত্নের সহিত ভালোভাবে বাড়ি পৌছানো নিশ্চিত করতে হবে।

মায়া চৌধুরী আরও বলেন, বিএনপির মূল টার্গেট হলো দেশে বিশৃঙ্খল ও অরজগতা এবং নাশকতা পরিস্থিতি সৃষ্টি করে দেশি বিদেশী ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে নির্বাচন ভণ্ডুল করা । যত নাশকতার কাজ সবই বিএনপি-জামায়াতের কাজ। তারা ট্রেনে,ট্রেনের বগিতে আগুন দেয়, বাসে আগুন দেয়, মানুষ হত্যা করে। এটির নাম রাজনীতি নয়। কিন্তু সেটি তাদের করতে দিতে পারি না, করতে দেয়া হবে না।

তিনি আরও বলেন,বিএনপি-জামায়াত দেশে আবার বিশৃঙ্খলা করে বিশেষ একটি পরিস্থিতি তৈরি করতে চায় এবং সেটা করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়। তারা জানে এই নির্বাচনে তাদের জয়ের সম্ভাবনা নাই। সেটি জেনেই তারা নির্বাচন ভণ্ডুল করার প্রস্তÍুতি নিচ্ছে, অপচেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু সেটি তাদের করতে দেয়া হবে না।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঠেকাতে বিএনপি আগুন সন্ত্রাস করছে, মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করছে। আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ ভোটের মাধ্যমে বিএনপির আগুন সন্ত্রাসের জবাব দেবে।

বিএনপি জামায়াতের জ্বালাও-পোড়াও ও ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের এই শীর্ষ নেতা আরও বলেন আগামী নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে পঞ্চম বারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করতে হবে। এজন্য আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে।

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেন, বিএনপি নির্বাচনে না এসে তাদের জনপ্রিয়তা যাচাই করার সুযোগ হারিয়েছে। প্রকৃত অর্থে তাদের জনপ্রিয়তা- জনসম্পৃক্ততা নেই বলেই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছে। এখন তারা সন্ত্রাসের মাধ্যমে নির্বাচনকে প্রতিহত করার ষড়যন্ত্র করছে। তাদের এ ষড়যন্ত্র সফল হবে না। দেশের জনগন উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট দিবে। আমার ভোট আমি দেব যাকে খুশি তাকে দিব।
মায়া চৌধুরী আরো বলেন, সবাই মিলে দেশ স্বাধীন করেছি, সবাই মিলেই দেশ গড়বো। নির্বাচনকে সামনে রেখে আচরণ বিধি মেনে চলবেন। আমি আশাবাদী আপনারা আমাকে ভোট দিয়ে জয়লাভ করাবেন। আমি জয়লাভ করলে আর শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হলে গ্রাম হবে শহর আর স্মার্ট মতলব।

মতলব দক্ষিণ উপজেলার ২নং নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ চাঁন মিয়া তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদের পরিচালনায় উঠান বৈঠকে আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লেয়াকত হোসেন প্রধান,জেলা কৃষক লীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন প্রধান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএইচএম কবির আহম্মেদ, জেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান কালু ভুইয়া, মতলব পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আওলাদ হোসেন লিটন, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আসমা আক্তার আঁখি, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল মোস্তফা তালুকদার, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মামুন মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা আশরাফুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা নেছার শিকদার,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ওমর ফারুক, ছাত্রনেতা মাসুদুর রহমান পাটোয়ারী, মোঃ কাউছার আহমেদ, মোঃ সাদ্দাম হোসেন,মোঃ ফয়সাল, যুবলীগ নেতা রাব্বানী, মোঃ গোলাম রাব্বানী প্রমুখ।

www.bbcsangbad24.com

আরও দেখুন আমাদের সাথে......

More From Author