মুন্সীগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলা,দোকানপাট,বাড়িঘর ভাংচুর,লুটপাটসহ আহত ২

Estimated read time 1 min read


ফেব্রুয়ারী,১৫,২০২৪

আবু হানিফ রানা:

বৃহ্স্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার সয়য় মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড চাম্পতলা গ্রামের চাঁন মিয়া হালাদার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর ও দোকানপাট ভাংচুর টাকা পয়সা লুটপাট,ককটেল বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটেছে। আর এতে মহিলানহ আহত হয়েছেন দুইজন। ঘটনাস্থল থেকে একটি তাজা ককটেল ও ভাংগা কাঁচের বোতল উদ্বার করেছে পুলিশ।
সরেজমিনে গিয়ে জানাযায়,পঞ্চসার ইউনিয়নের চাম্পাতলা গ্রামের হালাদার বাড়ির মৃত চাঁন মিয়া হালাদারের ছেলে বাচ্ছু হালদারের মুদি দোকানে রাত সাড়ে আট টার সময় রনচ রুহিতপুর গ্রামের মাদক সম্রাজ্ঞী শান্তির ছেলে মাদক সম্রাট বাবু ২৫ থেকে ৩০ জনের একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে অর্তকিত হামলা ও ককটেল বিস্ফোরন ঘটায়। দোকানপাট কুপিয়ে এবং দোকানদার বাচ্চু হালদার (৬৫) কে মারধর করে নগদ ক্যাশসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়।
কিছুক্ষনের মধ্যে আবার বাচ্ছু হালদারের বাড়ি প্রবেশ করে ঘর দরজা কুপিয়ে ঘরে ঢুকে কোরআন শরিফ পড়া অবস্থায় বাচ্চু হালদারের স্ত্রী নাছিমা বেগম (৫৫) কে দারালো অস্ত্র দিয়ে পাতারী কুপিয়ে টাকা পয়সা ,স্বর্ণ অলংকার নিয়ে দ্রæত পালিয়ে যায়। আহত নাছিমার আত্ম চিৎকারে এলাকাবাসি এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসী বাবু তার বাহিনী নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় বলে বাচ্চু হালদার জানায়। এলাকাবাসি আহত নাছিমা বেগমকে দ্রুত মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি কারন।
খবর পেয়ে মুন্সীগঞ্জ জেলা পুলিশের টহল ডিউটিরত এস আই সজল ও এটি এস আই রাসেল সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থল যায় । সেখান থেকে ভাংগা কাঁচের বোতল ও একটি তাজা ককটেল উদ্বার করেছে। গনমাধ্যম কর্মীরা ও জেলা বিশেষ শাখা ডিএসবি পুলিশ সরেজমিনে যায়।

বাচ্চু হালদার সাংবাদিকদের বলেন,আমার ছেলে ইমনকে মাদক মম্রাজ্ঞী শান্তির ছেলে মাদক ম¯্রাট বাবু তার সাথে মাদক বেচার প্রস্থাব দেয় বেশ কিছুদিন আগে । আমার ছেলে তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বাবু আমার ছেলেকে বেদম মারধর করে । আর এঘটনায় এলাকাবাসি বাবুকে শাসনসহ বিচার করে দেয়। এরই জের ধরে আজকে সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে বাবু এহামলা চালায়। আমার দোকানপাট কুপিয়েছে,দোকানের ভিতরে ককটেল মেরেছে। আমাকে মারধর করে দোকানের ক্যাশ ভেঙ্গে নগদ টাকা পয়সা ও মালামাল লুটপাট করে। পরে আমার বাড়িতে গিয়ে আমার ছেলে খোঁজে না পেয়ে কোরআন শরিফ পড়া অবস্থায় আমার স্ত্রীকে কুপিয়েছে । বর্তমানে আমার স্ত্রী হাসপাতালে মূমর্ষ অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে। এবিষয়ে মুন্সীগঞ্জ থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান আহত বাচ্চু হালদার।

www.bbcsangbad24.com

আরও দেখুন আমাদের সাথে......

More From Author